fbpx

Terms & Conditions for the Pilots of Bongo Xpress

  • সূচনা
  • কোম্পানির পরিচয়
  • সমঝোতা স্মারকের মধ্যে প্রবেশের উদ্দেশ্য
  • সাধারণ শর্তাবলী
  • ট্রাক রেজিস্ট্রেশন বা পাইলট হিসেবে যোগদানের যোগ্যতা
  • ড্রাইভার অ্যাপে ট্রিপ গ্রহণ ও সম্পন্নের পদ্ধতি
  • পাইলট হিসেবে ট্রাক ড্রাইভারের দায়িত্ব সমূহ
  • আর্থিক বিবেচনা ও লেনদেনের শর্তাদি
  • গাড়ি/ট্রাক ব্যবস্থাপনা
  • গোপনীয়তা ধারা
  • আইন প্রয়োগ ও মীমাংসা ধারা
  • শর্তাবলীর পরিবর্তন ধারা
  • যোগাযোগ

এই ডকুমেন্টটি ট্রাক ড্রাইভার এবং বঙ্গ এক্সপ্রেস এর সাথে সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি পত্র হিসেবে গণ্য হবে।  উক্ত সমঝোতা স্মারকে উভয় পক্ষের দায়-দায়িত্ব, শর্তাবলী ও সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।  বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্ম ব্যবহারের করলে ধরে নেয়া হবে যে,  ট্রাক ড্রাইভার এই ডকুমেন্টে উল্লেখিত সকল শর্তাবলী সঠিকভাবে মেনে চলার জন্য কোম্পানির সাথে চুক্তিবদ্ধ।  উক্ত সমঝোতা স্মারকে উল্লেখিত ধারা, অনুচ্ছেদ ও শর্তাবলী সমূহ তৈরি করা, পরিবর্তন করা বা বর্জন করার  ক্ষমতা একমাত্র বঙ্গ এক্সপ্রেস ও তার মনোনীত কর্তৃপক্ষের।  বিভিন্ন সময় পরিবর্তন আসলে প্রথম পক্ষ অর্থাৎ বঙ্গ এক্সপ্রেস সেটি দ্বিতীয় পক্ষকে অবগত করবে, যেকোনো পরিবর্তন মানতে ট্রাক ড্রাইভার বাধ্য থাকবে।  উক্ত সমঝোতা স্মারকটি ৪ ডিসেম্বর ২০২১ ইং তারিখে আপডেট করা হয়েছে।

"বঙ্গ এক্সপ্রেস" একটি অ্যাপ-ভিত্তিক লজিস্টিক প্ল্যাটফর্ম যা "বঙ্গ টেকনোলজি লিমিটেড" এর মালিকানাধীন এবং উক্ত কোম্পানির পরিচালকদের দ্বারা পরিচালিত। "বঙ্গ টেকনোলজি লিমিটেড" বাংলাদেশ কোম্পানি আইন- ১৯৯৪ এর অধীনে গঠিত ও পরিচালিত একটি প্রাইভেট কোম্পানি; কোম্পানি ইনকরপোরেশন রেজিস্ট্রেশন নং: সি -১৬৮৭১৮ (C-168718), ট্রেড লাইসেন্স: 417938, বিজনেস আইডেন্টিফিকেশন নং: 003973989-0102, বিজনেস টিআইএন নং: ৫৬০১৭৯৪৮২২৪৩ (560179482243), ইক্যাব (ECAB) মেম্বারশিপ আইডি: ১৬০২। কর্পোরেট অফিস এর ঠিকানা- বাসা ৬৯ (ফ্ল্যাট এ ৩), রোড ০৭, সেক্টর ০৪, উত্তরা ইস্ট, ঢাকা-১২৩০।  

 

বঙ্গ এক্সপ্রেস একটি টেকনোলজি নির্ভর লজিস্টিকস কোম্পানি , উক্ত কোম্পানিটি অ্যাপ ভিত্তিক লজিস্টিকস সার্ভিস প্রদান করে থাকে যার মধ্যে অনলাইন ট্রাক রেন্টাল সার্ভিস অন্যতম।  অনলাইন ট্রাক রেন্টাল সার্ভিস প্রদানের জন্য উক্ত কোম্পানি ট্রাক ড্রাইভারের এর সাথে কাস্টমারের যোগাযোগ স্থাপন ও ট্রিপ তৈরির জন্য একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করবে।  বঙ্গ এক্সপ্রেস তার প্লাটফর্মে ট্রাক ড্রাইভার এর জন্য ট্রিপ তৈরী করবে, অর্থাৎ বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাস্টমার কর্তৃক ট্রিপ তৈরির পর কাস্টমারকে মালামাল পরিবহন সেবা দানের জন্য ট্রাক ড্রাইভার নিযুক্ত হবে।  যেহেতু বঙ্গ এক্সপ্রেসের নিয়ম কানুন মেনে ড্রাইভার বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাস্টমারকে সার্ভিস দিবে, সেহেতু বঙ্গ এক্সপ্রেসের এবং ট্রাক ড্রাইভারের মধ্যে  সমঝোতা স্মারক থাকা আইনগতভাবে বাঞ্চনীয়।

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, ট্রাক মালিক বা তার নিযুক্ত ট্রিপের জন্য ন্যায্য ভাড়া বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাস্টমার থেকে পেয়ে যাবে এবং কোম্পানির প্লাটফর্ম (মোবাইল অ্যাপ) ব্যবহারের জন্য গাড়ির মালিক উক্ত কোম্পানিকে নির্দিষ্ট হারে কমিশন প্রদান করতে বাধ্য থাকবে। টার্গেট অনুযায়ী সফলভাবে ট্রিপ সম্পন্ন করলে ড্রাইভার বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষ থেকে বোনাস ও ইন্সেন্টিভ উপভোগ করতে পারবে। 

সমঝোতা স্মারকের মধ্যে প্রবেশের আরো একটি অন্যতম উদ্দেশ্য হল ট্রাক ড্রাইভার কোম্পানির শর্তাবলী ও নিয়মাবলী মেনে চলতে স্বীকৃতি প্রদান করবে; এছাড়াও নিম্নোক্ত উপায়ে উভয় পক্ষের ব্যবসায়িক স্বার্থ রক্ষার্থে সমঝোতা স্মারক দলিল হিসেবে কাজ করবে। 

ক) ট্রাকের মালিক তার ট্রাক এবং ড্রাইভার পরিচালনার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেসের এর প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করবে এবং কাস্টমার (যাদের পরিবহন প্রয়োজন) এর চাহিদা অনুযায়ী অন-ডিমান্ড বা চুক্তির ভিত্তিতে উক্ত প্লাটফর্ম ব্যবহার করে পরিবহন সেবা অথবা ট্রিপ সরবরাহ করবে।  

খ) ট্রাক ও তার ড্রাইভার পরিচালনার দায়িত্ব গাড়ির মালিকের দখলে থাকবে। বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্মে রেজিস্টার্ড কোনো যানবাহনের মালিকানা ও পরিচালনার দায়িত্ব কোনোভাবেই কোম্পানির থাকবে না। বরং বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্ম ট্রাক মালিক/ এজেন্সি/ট্রাক ড্রাইভারদেরকে তাদের কাস্টমারের সাথে অনলাইনে সংযুক্ত করবে যেখানে কাস্টমারের ট্রিপ বা পরিবহন চাহিদার জন্য ট্রাক মালিকের গাড়ি ও ড্রাইভার স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিযুক্ত হবে।

গ) এই চুক্তিটি উপরে উল্লিখিত তারিখে শুরু হবে এবং চুক্তি শেষ না হওয়া পর্যন্ত কার্যকর থাকবে৷ ট্রাক মালিক বা তার ড্রাইভার বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্ম  ব্যবহার করা বন্ধ করে দিলে এবং চুক্তি অনুযায়ী লেনদেন সম্পন্ন করে শেষ করলে এই চুক্তিটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে  বাতিল হয়ে যাবে।  তাছাড়া প্রথম পক্ষ চাইলেই যেকোনো সময়ে দ্বিতীয় পক্ষকে  চুক্তি বাতিলের নোটিশ দিতে পারে। এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে,  শর্তাবলী অমান্য ও নিয়ম ভঙ্গের কারণে দ্বিতীয় পক্ষ (ট্রাক মালিক/ ট্রাক ড্রাইভার )-কে যেকেনো মুহূর্তে প্রথম পক্ষ মৌখিক নোটিশের মাধ্যমে ও এই চুক্তিটি বাতিলের ঘোষণা দিতে পারে।

উল্লেখ্য যে, ট্রাক মালিকের জন্য আলাদা সমঝোতা স্মারক বা চুক্তিপত্র রয়েছে যা কিনা বঙ্গ এক্সপ্রেস পার্টনার অ্যাপ এবং বঙ্গ এক্সপ্রেস ওয়েবসাইটে আপলোড করা থাকবে।  ড্রাইভার যদি ট্রাকের মালিক না হয় তাহলে উক্ত সমঝোতা  স্মারকে উল্লেখিত সকল ধারা শুধু মাত্র ড্রাইভারের জন্য বহাল থাকবে।  অন্যথায়, ড্রাইভার যদি নিজেই ট্রাকের মালিক হয়ে থাকে তাহলে উক্ত ড্রাইভারকে অবশ্যই ট্রাক মালিকের জন্য প্রস্তুতকৃত সমঝোতা স্মারকটি পড়ে এবং বুঝে একমত বলে স্বাক্ষর  করতে হবে।  অথবা বঙ্গ এক্সপ্রেস প্লাটফর্ম ব্যবহার করলে ধরে নেয়া হবে ট্রাক মালিক বা ড্রাইভার কোম্পানির সকল নিয়ম কানুন মেনে চলতে বাধ্য থাকবে। 

ট্রাক মালিকের জন্য সমঝোতা স্মারক এই লিংকে গিয়ে দেখে নিতে পারেনঃ

https://www.bongoxpress.com/terms-conditions-for-the-partnersof-bongo-xpress/

বঙ্গ এক্সপ্রেসের সাথে ট্রাক রেজিস্ট্রেশন বা পাইলট হিসেবে যোগদানের জন্য অবশ্যই নূন্যতম একটি ট্রাকের চালক (অথবা মালিক) হতে হবে।  পাইলটকে অবশ্যই কমপক্ষে ১৮ বছর বয়সী হতে হবে  এবং বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কর্তৃক জারি করা বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে এমন কোন ব্যক্তি হতে হবে।  বঙ্গ এক্সপ্রেসের নিয়ম অনুযায়ী বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট অ্যাপ (ড্রাইভার অ্যাপ ) -টি ডাউনলোড ( বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট অ্যাপ ডাউনলোড লিংকঃ https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bongo.pilot&hl=en&gl=US ) করে সাইনআপ (SignUp) অপশনে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। বঙ্গ এক্সপ্রেস সাপোর্ট টিম কল করে ভেরিফাই করে দিবে এবং নিয়ম-কানুন ও পেমেন্ট সম্পর্কে জানিয়ে দিবে, সহমত প্রকাশ করলেই ড্রাইভার ট্রিপ নেয়ার জন্য উপযোগী বলে ঘোষণা করা হবে।  

বঙ্গ এক্সপ্রেসের ভেরিফাইড পাইলট হিসাবে নিবন্ধিত হওয়ার ফলে আপনি নিম্নোক্ত বিষয়গুলির ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন এবং স্বজ্ঞানে মেনে চলবেন বলে প্রতিশ্রুতি ঘোষণা দিয়েছেন:

১) ট্রাক ড্রাইভার হিসেবে আপনার নামে অবশ্যই একটি বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে এবং ড্রাইভারকে মোটর গাড়ি চালানোর জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে অনুমোদন প্রাপ্ত হতে হবে। এছাড়াও ড্রাইভার এই মর্মে চুক্তিবদ্ধ হবেন যে, তিনি কোনো তৃতীয়পক্ষকে ভাড়ার ভিত্তিতে ট্রাক পরিবহন সেবা দানের সরবরাহ করবেন। 

২) বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাস্টমারদের ট্রিপ গ্রহণ এবং সেই অনুযায়ী পরিবহন সেবা প্রদানের জন্য ব্যবহৃত গাড়ির মালিকানা ড্রাইভারের থাকতে ও পারে আবার না ও থাকতে পারে। যদি ড্রাইভার নিজে গাড়ির মালিক না হয় তাহলে অবশ্যই মালিকের কাছ থেকে সম্মতি নিয়ে বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্মে ট্রাক রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। 

৩) রেজিস্টারকৃত ট্রাকটির অপারেটিং অবস্থায় অবশ্যই ভাল থাকতে হবে যাতে মালামালের সম্পূর্ণ সুরক্ষা নিশ্চিত হয়। 

৪) ট্রাকের অবশ্যই মোটর গাড়ি বীমা বা ব্যবসায়িক বীমা পরিচালনার জন্য একটি বৈধ পলিসি থাকতে হবে, যাতে মালামাল পরিবহনের সাথে সম্পর্কিত যে কোনো প্রত্যাশিত বা অপ্রত্যাশিত ক্ষতি পূরণ করতে পারেন ট্রাকের মালিক।

৫) ট্রিপ চলাকালীন সময়ে বা অন্য যেকোনো সময়ে মালামাল বা পণ্যের যদি কোনো দুর্ঘটনা বা ক্ষয়ক্ষতি হয় তার সম্পূর্ণ দায়-দায়িত্ব ড্রাইভার ও ট্রাক মালিকের থাকবে। 

৬) ড্রাইভার পণ্য পরিবহন ও পরিচালনার সাথে সম্পর্কিত সকল স্থানীয় আইন মেনে চলবেন এবং এই জাতীয় আইনগুলির লঙ্ঘনের জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী থাকবেন। 

৭) বঙ্গ এক্সপ্রেস প্ল্যাটফর্মের সাথে যুক্ত থাকা সংশ্লিষ্ট ট্রাক মালিক পার্টনার, কমিশন এজেন্ট, বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট কর্মী, ফার্স্ট-মাইল (পিকআপ পয়েন্ট) কাস্টমার এবং লাস্ট-মাইল (ডেলিভারি পয়েন্ট) কাস্টমার সহ কোন ব্যবহারকারীদের বিরক্ত বা কোন প্রকারের অসদাচরণ করা যাবেনা।

৮) কোম্পানির প্রয়োজনে যেকোন ধরণের তথ্য বা পরিচয় প্রমান জমাদানের অনুরোধ করা হলে ড্রাইভার তা সরবরাহ করতে বাধ্য থাকবেন।

৯) মালামাল লোডিং ও আনলোডিং করার সময় চেক করে নেয়া ড্রাইভারের একান্ত দায়িত্ব; কেননা পরিবর্তীতে মালামালের ক্ষতি বা ত্রুটি সংক্রান্ত অভিযোগের জন্য ড্রাইভার ও ট্রাক মালিক ব্যক্তিগতভাবে ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবেন। সুতরাং লোডিংয়ের সময় কোন প্রকার ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে তা অবশ্যই বঙ্গ এক্সপ্রেস সাপোর্ট টিমকে জানাতে হবে।

উপরোক্ত বিষয় গুলির সাথে একজন ড্রাইভার একমত হলেই বঙ্গ এক্সপ্রেসের পাইলট হিসেবে যোগদানের জন্য যোগ্য বলে ধরে নেয়া হবে। 

বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট অ্যাপ শুধু মাত্র ট্রাকের ড্রাইভার ব্যবহার করবে এবং ট্রিপ গ্রহণ ও সম্পন্নের জন্য ড্রাইভার নিম্নোক্ত ধাপ গুলো অনুসরণ করবে। ড্রাইভারের মোবাইল ফোনে বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট অ্যাপ অ্যাক্টিভ না থাকলে বা ট্রিপ সম্পন্নের জন্য নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ না করলে ট্রিপের সঠিক ভাড়া আসবেনা এবং তার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেস দায়ী থাকবেনা।   

১) ড্রাইভার অ্যাপের সাইড মেনুবারে "Duty" অপশন সবসময় "On" রাখুন।

২) ট্রিপ নোটিফিকেশন পেলে পিকআপ-ডেলিভারি ডিটেইলস এবং ভাড়া দেখে "Accept" অপশনে ক্লিক করে ট্রিপটি গ্রহণ করুন। 

৩) "start" অপশনে স্লাইড করে পিকআপ (লোডিং) লোকেশনের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করুন।

৪) পিকআপ (লোডিং) লোকেশনে পৌঁছে "arrive" অপশনে স্লাইড করুন এবং কাস্টমার থেকে OTP সংগ্রহ করুন। ট্রাকের ধরণ অনুযায়ী লোডিং ও আনলোডিং এর জন্য নির্ধারিত ফ্রী সময় সম্পর্কে কাস্টমারকে অবহিত (অনুরোধ) করুন, কেননা ফ্রী সময় উত্তীর্ণ হলে পরবর্তী প্রতি মিনিটে ওয়েটিং চার্জ মূল ভাড়ার সাথে সংযুক্ত হবে এবং তা কাস্টমারকেই পরিশোধ করতে হবে।    

৫) লোডিং সম্পন্ন করে পিকআপ লোকেশন থেকে ডেলিভারি লোকেশনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরুর পূর্বে মালামাল লোডিংয়ের ছবিও চালান পত্রের ছবি (যদি থাকে) ড্রাইভার অ্যাপে আপলোড করতে হবে, এবং পিকআপ কাস্টমারের ডিজিটাল স্বাক্ষর নিতে হবে, তারপর “successful" অপশনে স্লাইড করে নিন । সাথে সাথে পিকআপ কাস্টমারকে রেটিং দিন এবং প্রয়োজনে আপনার মতামত "review" অপশনে লিখে দিন। ডেলিভারি লোকেশনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করুন । 

মনে রাখতে হবে, পিকআপের কাস্টমার আপনাকে (ড্রাইভার হিসেবে) রেটিং দিতে পারে, সুতরাং আপনার দায়িত্ব হবে সর্বোত্তম সেবা দিয়ে কাস্টমারের সন্তুষ্টি অর্জন করা এবং কাস্টমার কে ভালো রেটিং দেয়ার জন্য অনুরোধ করা। আরো মনে রাখতে হবে যে, ড্রাইভারের রেটিং পয়েন্ট কমে গেলে ট্রিপের পরিমান কমে যাবে  

৬) পিকআপ সফল ভাবে সম্পন্ন করে "start" অপশন স্লাইড করে ডেলিভারি লোকেশনের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করুন। 

৭) ডেলিভারি লোকেশনে পৌঁছে একইভাবে "arrive" অপশনে স্লাইড করুন এবং কাস্টমার থেকে OTP সংগ্রহ করুন। দ্রুত আনলোডিং সম্পন্নের এর জন্য কাস্টমারকে অনুরোধ করেন যেহেতু লোডিং ও আনলোডিং এর জন্য নির্ধারিত ফ্রী সময় রয়েছে এবং যা উত্তীর্ণ হলে পরবর্তী প্রতি মিনিটে চার্জ মূল ভাড়ার সাথে সংযুক্ত হবে অর্থাৎ ভাড়া বেড়ে যাবে। 

৮) মালামাল আনলোডিং এর ছবি ও চালান পত্রের ছবি (যদি থাকে) ড্রাইভার অ্যাপে আপলোড করে করতে হবে, এবংডেলিভারি কাস্টমারের ডিজিটাল স্বাক্ষর নিতে হবে, তারপর “successful" অপশনে স্লাইড করে দিন। । সাথে সাথে কাস্টমারকে রেটিং দিতে হবে এবং প্রয়োজনে আপনার মতামত "review" অপশনে লিখে দিতে পারেন। উক্ত ধাপ সমূহ সম্পন্ন হলে ট্রিপটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে গণ্য হবে। 

রেটিং প্রদানের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে, ডেলিভারি পয়েন্টের কাস্টমার ও আপনাকে (ড্রাইভার হিসেবে) রেটিং দিতে পারে, সুতরাং আপনার দায়িত্ব হবে সর্বোত্তম সেবা দিয়ে কাস্টমারের সন্তুষ্টি অর্জন করা এবং কাস্টমার কে ভালো রেটিং দেয়ার জন্য অনুরোধ করা। আরো মনে রাখতে হবে যে, ড্রাইভারের রেটিং পয়েন্ট কমে গেলে ট্রিপের পরিমান ও কমে যাবে। 

৯) বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট (ড্রাইভার) অ্যাপের "Earnings" অপশন থেকে ভাড়া দেখে তা কাস্টমারকে জানিয়ে দিন এবং ভাড়া ক্যাশে (নগদ) সংগ্রহ করুন।

১০) ডেলিভারি পয়েন্টের কাস্টমার যদি ট্রিপের ডিজিটাল বিল দেখতে চায়, তাহলে সাইড-মেনুবারের "History" অপশনে গিয়ে সম্পন্ন হওয়া ট্রিপটি সিলেক্ট করে "Export Trip" এ ক্লিক করে বিল ডাউনলোড করে নিন এবং হোয়াটস অ্যাপ (WhatsApp) অথবা ইমেইল এর মাধ্যমে কাস্টমারকে বিলটি পাঠিয়ে দিন। 

) ট্রিপ/পরিবহন সেবা সরবরাহ সংক্রান্ত শর্তাদি:

১)  ট্রাক ড্রাইভার (ট্রাক মালিকের সম্মতিক্রমে) অবশ্যই কাস্টমার বা বঙ্গ এক্সপ্রেসের ট্রিপের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী পরিবহন সরবরাহ করতে হবে।

২) ট্রিপ ড্রাইভার অ্যাপে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আসবে, ড্রাইভার পিকআপ ও ডেলিভারি লোকেশন এবং এস্টিমেটেড ভাড়া (Estimated Fare) বা সম্ভাব্য ভাড়া দেখে ট্রিপটি একসেপ্ট (Accept) বা গ্রহণ করবেন।

৩) মনে রাখতে হবে যে, ড্রাইভার যদি কোন ট্রিপ গ্রহণ করতে অস্বীকার করে এবং পর পর তিন (৩) বার বাতিল (Decline) করে, তাহলে বঙ্গ এক্সপ্রেস তার ট্রিপ পাওয়ার সুবিধা ব্লক করতে পারে অথবা ড্রাইভারের অ্যাকাউন্ট ব্লক রাখতে পারে। এক্ষেত্রে গাড়ির মালিক বা ড্রাইভার নিজে বঙ্গ এক্সপ্রেসের সাপোর্ট টিমের সাথে যোগাযোগ করে যথাযথ কারণ ব্যাখ্যা করতে পারলে ব্লক বা এই ধরণের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হবে এবং ড্রাইভার অ্যাকাউন্টটি চালু করে দেয়া হবে। 

৪) বঙ্গ এক্সপ্রেস প্লাটফর্মে ট্রিপ পাওয়ার মাধ্যমে পরিবহন সেবা নিশ্চিতকল্পে কাস্টমারের সাথে ড্রাইভার সংযুক্ত হয়ে গেলে ট্রিপটি সম্পন্ন করা পর্যন্ত সমস্ত দায়ভার ড্রাইভার (বা ট্রাক মালিক) এর উপর বর্তাবে। ড্রাইভার কাস্টমারের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী সার্ভিস প্রদানের জন্য দায়বদ্ধ থাকবে। কাস্টমারের কাছ থেকে কোন অনিয়ম ও অসদাচরণের অভিযোগ পেলে বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারবে এমনকি ড্রাইভার অ্যাকাউন্ট ব্লক করতে পারে।   

) লেবার ম্যানেজমেন্ট অন্যান্য সেবা সংক্রান্ত শর্তাদি:

ট্রাক মালিক বঙ্গ এক্সপ্রেস প্লাটফর্মে ট্রাক ও তার ড্রাইভার যুক্ত করা ও ট্রিপ পাওয়ার পূর্বশর্ত হিসেবে লেবার ম্যানেজমেন্ট ও অন্যান্য সেবা (ট্রিপের সাথে) প্রদানের জন্য চুক্তিবদ্ধ। সুতরাং, ড্রাইভারকে এই বিষয়ে মালিকের কাছ থেকে জানতে হবে এবং নিম্নোলিখিত শর্তাদি মেনে চলতে বাধ্য থাকবে। 

১) ট্রিপের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী কাস্টমারকে পরিবহন সেবার পাশাপাশি পণ্যের লোডিং- আনলোডিং এর জন্য অন্যান্য সহায়তা (যেমন-লেবার, হেল্পার, মেশিন ইনস্টলার, হ্যান্ডিম্যান, ইলেকট্রিশিয়ান ইত্যাদি) প্রদানের জন্য ট্রাক মালিক বঙ্গ এক্সপ্রেসের সাথে চুক্তিবদ্ধ; সুতরাং ড্রাইভার এই বিষয়ে অবগত থাকবে এবং কাস্টমারের কাছ থেকে এই ধরণের কোন আবশ্যিক শর্ত (Requirement) আসলে তা পূরণের জন্য কাস্টমারের সাথে আলোচনা করে সক্রিয়ভাবে কাজ করতে হবে। 

২) বঙ্গ এক্সপ্রেসের লেবার চার্জ ও পলিসি - এর সাথে একমত হয়ে কাস্টমার ট্রিপের সাথে যত জন লেবার সিলেক্ট করবে ড্রাইভার নিজে অথবা ট্রাক মালিকের   সাথে আলোচনা করে তত জন লেবার সরবরাহ করতে বাধ্য থাকবে। এই ধরণের সহায়তার ব্যবস্থা করার কোন দায়বদ্ধতা বঙ্গ এক্সপ্রেসের নেই।

৩) বঙ্গ এক্সপ্রেস লেবার চার্জ ও অন্যান্য সহায়তার মূল্য নির্ধারণ করবে যা মূল ভাড়ার সাথে সংযুক্ত হবে; ট্রিপটি সফলভাবে সম্পন্ন করে ড্রাইভার মালিক সর্বমোট ভাড়া কাস্টমার থেকে সগ্রহ করে নিবেন। লেবারদের ম্যানেজ করা ও তাদের পারিশ্রমিক দেয়ার দায়িত্ব একান্তই ট্রাক মালিকের অথবা ট্রাক মালিক যদি ড্রাইভারকে দায়িত্ব অর্পণ করেন সেক্ষেত্রে উক্ত কাজের জন্য ড্রাইভারকেই জবাবদিহি করতে হবে। বঙ্গ এক্সপ্রেস ট্রিপ ও লেবার চার্জ সহ সকল চার্জ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে।

*ট্রিপের ভাড়া ব্যতীত অতিরিক্ত কোনো প্রকারের অর্থ (বকশিস, টিপ ইত্যাদি) কাস্টমারের কাছে দাবি করা যাবেনা, ড্রাইভার বা তার মালিকের বিরুদ্ধে এরূপ অভিযোগ প্রমাণিত হলে বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারবে।  

৪)  বঙ্গ এক্সপ্রেস প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ড্রাইভার বা ট্রাক মালিক তার নিজস্ব কাস্টমারকে কোন ট্রিপ/পরিবহন সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে ফ্রী লেবার সরবরাহ করতে পারে;

এক্ষেত্রে ড্রাইভার বা ট্রাক মালিকের এইরূপ সিদ্ধান্তের জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেস দায়ী থাকবে না, বরং ড্রাইভার বা ট্রাক মালিকের পক্ষ হয়ে বঙ্গ এক্সপ্রেস কাস্টমারের কাছে অফারটি প্রচার করবে। আবার, যদি কোম্পানি কাস্টমারের জন্য এমন কোন ডিসকাউন্ট বা অফার প্রদান করে তাহলে ড্রাইভার বা ট্রাক মালিকের সাথে পারস্পরিক আলোচনার ভিত্তিতে এই ধরণের অফারের মূল্য/চার্জ নির্ধারণ করা হবে।

৫) বঙ্গ এক্সপ্রেস এর প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে পরিবহন সেবার সাথে লেবার ও অন্যান্য সেবা প্রদানের জন্য ট্রাক মালিকের কাছ থেকে নির্দিষ্ট হারে কমিশন নেয়া হবে। এবং ড্রাইভার যদি যথাযথভাবে কাস্টমারকে চাহিদা অনুযায়ী সেবা দিতে পারে তাহলে নির্দিষ্ট টার্গেট পূরণ করলে বঙ্গ এক্সপ্রেস-এর পক্ষ থেকে বোনাস বা ইনসেন্টিভ পাবে ।

৬) কোন ট্রিপের লোড ও আনলোডের জন্য যদি কোনো বিশেষ সরঞ্জামের প্রয়োজন হয় তবে কাস্টমারের সাথে সমঝোতার ভিত্তিতে সেটি পিকআপ ও ডেলিভারি পয়েন্টে সরবরাহ করা ড্রাইভার বা ট্রাক মালিকের দায়িত্ব হিসেবে বিবেচিত হবে। 

) তথ্যের-উপাত্তের ভ্যালিডিটি সংক্রান্ত শর্তাদি:

১) কোম্পানিতে ট্রাক ড্রাইভার (পাইলট হিসেবে) নিবন্ধনের সময় তার গাড়ি ও নিজের সম্পর্কিত সকল তথ্য সঠিকভাবে জমা দিতে হবে, এবং গাড়ি ও ড্রাইভারের লাইসেন্স ও যাবতীয় নথিপত্রের বৈধতা নিশ্চিত করতে হবে।

২) ট্রাক ড্রাইভার কর্তৃক প্রদানকৃত কোন তথ্য মিথ্যা, জাল বা নকল বলে প্রমাণিত হলে কোম্পানি দায়বদ্ধ থাকবে না। বরং কোম্পানির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এই ধরনের জালিয়াতির বিরুদ্ধে অবিলম্বে বাংলাদেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারবে। 

৩) ড্রাইভার অ্যাপে ট্রাক বা ড্রাইভার তার নিজের সম্পর্কিত কোনো তথ্য যদি পরিবর্তন করতে চান তাহলে তাকে অবশ্যই কোম্পানির সাপোর্ট টিমকে জানাতে হবে এবং সেই অনুযায়ী সাপোর্ট টিম আপডেট করে দিবে। উল্লেখ্য যে, নিরাপত্তার স্বার্থে অবশ্যই সাপোর্ট টিমকে প্রয়োজনীয় প্রমাণাদি দাখিল করতে হবে। 

) দায়বদ্ধতা লস ম্যানেজমেন্ট শর্তাদি:

১) ট্রিপ চলাকালীন সময়ে যেকোন দুর্ঘটনায় মালামালের ক্ষতি হলে বা ক্ষতি পূরণের দায়-দায়িত্বের জন্য এককভাবে ট্রাক মালিক বা ড্রাইভার দায়ী থাকবে। এতে বঙ্গ এক্সপ্রেস কোন প্রকারের দায়ভার গ্রহণ করবে না।

২) ট্রাক পরিবহন, ট্রাক ড্রাইভার ও সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত স্থানীয় নিয়মকানুন ও বাংলাদেশে প্রচলিত সকল আইন মেনে চলতে হবে; আইন লঙ্ঘনের জন্য ড্রাইভার সম্পূর্ণরূপে দায়ী থাকবেন। 

৩) কাস্টমার ও কোন ইউজারকে বিরক্ত করার জন্য বা কোন ব্যক্তিগত প্রতিহিংসার প্রতিশোধ নেয়ার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করা যাবে না।

৪) কাস্টমারের সাথে ড্রাইভারের অসদাচরণ বা ড্রাইভার যদি কাস্টমারের কোন ক্ষতি সাধন করে তার সমস্ত দায়ভার ড্রাইভার বহন করবেন। এই ধরণের কোন কর্মকান্ড প্রমাণিত হলে বঙ্গ এক্সপ্রেস অভিযুক্ত ড্রাইভার বা ট্রাক মালিকের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারবে। 

৫) বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাস্টমারের কাছে প্রতিযোগী কোম্পানির কোন সার্ভিস ও অ্যাপ্লিকেশন প্রচার করা, কুপন দেওয়া এবং অন্য কোনো ধরনের ডিসকাউন্ট বা অফারের পরামর্শ দেওয়া নিষিদ্ধ। এই ধরণের কোন কর্মকান্ড প্রমাণিত হলে বঙ্গ এক্সপ্রেস অভিযুক্ত ড্রাইভারের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিবে।

৬) ড্রাইভারকে অবশ্যই স্থানীয় ট্রাক মালিক/ এজেন্সি সমিতি, পরিবহন চালক এবং শ্রমিক ইউনিয়ন, স্থানীয় প্রশাসন এবং কোম্পানির এজেন্ট (বঙ্গ বণিক/সার্ভিস পয়েন্ট) এর সাথেও ভালো সম্পর্ক বজায় রাখতে হবে।

৭) ড্রাইভার অবশ্যই BRTA নির্দেশিকা অনুযায়ী যানবাহন চালনা এবং ট্রাফিক নিয়ম সম্পর্কে সচেতন থাকবেন। কেননা, ড্রাইভার ট্রাফিক আইন অমান্য করার অপরাধে মামলা বা আইনাগত ঝামেলায় জড়ালে তার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেস দায়ী থাকবে না।

৮)  ট্রাক বা গাড়ি সংক্রান্ত যেকোনো ধরনের সমস্যার জন্য ট্রাক ড্রাইভার ও তার মালিক সম্পূর্ণরূপে দায়ী থাকবে।

৯) ট্রিপ তৈরির ক্ষেত্রে কাস্টমার যদি পিকআপ ও ডেলিভারির ঠিকানা সম্পৰ্কে ভুল তথ্য দেয় তার দায়ভার কোম্পানি নিবে না, বরং ড্রাইভার উক্ত কাস্টমারের সাথে যোগাযোগ করে নিশ্চিত হয়ে নিবে । ড্রাইভার যদি কাস্টমারের কথা বলে দেখতে পায় যে, কাস্টমার  কর্তৃক প্রবেশকৃত পিকআপ বা  ডেলিভারি লোকেশন ভুল আছে তাহলে ড্রাইভারকে তা অবশ্যই বঙ্গ এক্সপ্রেস সাপোর্ট টিমকে জানাতে হবে। সাপোর্ট টিম উক্ত কাস্টমারের  সাথে যোগাযোগ করে লোকেশন সঠিক করে দিবে । অন্যথায়, ড্রাইভার যদি ভুল ঠিকানা  অনুযায়ী ট্রিপের জন্য যাত্রা  শুরু করে তার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেসের কোনো প্রকারের দায়ভার থাকবেনা।   

১০)  ড্রাইভারকে ট্রিপের নির্দেশনা অনুযায়ী কাস্টমারের মালামাল সঠিকভাবে ডেলিভারি করতে হবে এবং পিকআপ ও ডেলিভারিতে অ্যাপের নিয়ম অনুযায়ী পিকআপ ও ডেলিভারির প্রমান হিসেবে মালামালের ছবি, প্রেরক ও প্রাপকের ডিজিটাল স্বাক্ষর ইত্যাদি সঠিভাবে দাখিল করতে হবে। 

১১) ড্রাইভার বঙ্গ এক্সপ্রেসের সহযোগিতা নিয়ে অ্যাপের ট্রেনিং সম্পন্ন করে ট্রিপের জন্য চূড়ান্ত অনুমুতি নিতে হবে। ড্রাইভারকে অ্যাপ ট্রেনিং ব্যতীত কোন ট্রিপ দেয়া হবে না।

১২) মাসিক চুক্তির ভিত্তিতে বঙ্গ এক্সপ্রেসের মাধ্যমে কোন ইন্ডাস্ট্রি লেভেলের কাস্টমারকে (বা প্রতিষ্ঠানকে) ট্রাক ভাড়া বা পরিবহন সেবা প্রদানের জন্য ট্রাক মালিক চুক্তিবদ্ধ হলে উক্ত কাস্টমার (বা প্রতিষ্ঠান)-এর কমপ্লায়েন্স বা নিয়ম-কানুন অনুযায়ী সেবা দিতে হবে। অন্যথায়, এরূপ কাস্টমার (বা প্রতিষ্ঠান)-এর রিপোর্ট অনুযায়ী ড্রাইভারের খারাপ পারফরম্যান্স পরিলক্ষিত হলে তার সম্পূর্ণ দায়ভার ট্রাক মালিক ও তার ড্রাইভারকে নিতে হবে। বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষ ধরে নিবে এরূপ বিশেষ চুক্তি সম্পর্কে নিযুক্ত ড্রাইভার ভালো ভাবে ওয়াকিবহাল আছেন।   

১৩) ট্রিপ চলাকালীন সময়ে ট্রানজিট টাইমে যদি ড্রাইভার প্রয়োজনের অতিরিক্ত সময় ব্যয় করে তার জন্য ড্রাইভারকে বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাছে জবাবদিহি করতে হবে। প্রাইস চার্ট এ উল্লিখিত ওয়েটিং টাইম (বা লোডিং/আনলোডিং সময়) ব্যতীত অতিরিক্ত প্রতিটি সময়ের জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেসের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।

ট্রিপ শেষে কাস্টমার থেকে ভাড়া ট্রাকের মালিক বা তার ড্রাইভার সংগ্রহ করবেন এবং বঙ্গ এক্সপ্রেসের কমিশন নিম্নোক্ত উপায়ে ট্রাক মালিক পরিশোধ করবেন। ট্রাক মালিক যদি তার ড্রাইভারকে সকল কিছুর দায়িত্ব অর্পণ করেন অথবা ড্রাইভার যদি নিজেই গাড়ির মালিক হন তাহলে নিম্নোক্ত বিষয় গুলো ড্রাইভারকে মেনে চলতে হবে ।

১) অন-ডিমান্ড ট্রিপের ক্ষেত্রে ট্রিপ সফলভাবে সম্পন্ন করে ড্রাইভার বা ট্রাক মালিক কাস্টমারের কাছ থেকে ট্রিপের ভাড়া সংগ্রহ করবেন এবং নির্দিষ্ট সময়ের (পরবর্তি ১ কর্ম দিবস) মধ্যে বঙ্গ এক্সপ্রেস এর অনুমোদিত কর্মীর কাছে কোম্পানির প্রাপ্য কমিশন পরিশোধ করবেন। অথবা বঙ্গ এক্সপ্রেসের উল্লেখিত নিয়ম অনুসারে ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ মোবাইল ব্যাংকিং বা ওয়ালেটের মাধ্যমে কমিশন পরিশোধ করতে হবে। 

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট নম্বর: 01322813550

২) বিশেষ কাস্টমার বা ইন্ডাস্ট্রি লেভেলের কাস্টমারের চুক্তি ভিত্তিক ট্রিপের ক্ষেত্রে বঙ্গ এক্সপ্রেস চুক্তি অনুযায়ী দৈনিক, সাপ্তাহিক বা মাসিক ভিত্তিতে ট্রিপের ভাড়া বা পেমেন্ট সংগ্রহ করবে; এবং একইভাবে কোম্পানির কমিশন রেখে বাকি পেমেন্ট ট্রাকের মালিককে ট্রিপের মূল্য হিসেবে পরিশোধ করবে। সুতরাং এক্ষেত্রে, ট্রিপের মূল্য মাসিক ভিত্তিতে কোম্পানি ট্রাক মালিককে অথবা তার মনোনীত ড্রাইভার বা কর্মীকে পরিশোধ করবে।  চুক্তিভিত্তিক কাস্টমারের বিলিং-সাইকেল অনুযায়ী পেমেন্ট প্রদান করা হবে, যদি কাস্টমার পেমেন্ট দিতে বিলম্ব করে স্বাভাবিকভাবে ট্রাক মালিক/ড্রাইভার এর পেমেন্ট পরিশোধে বিলম্ব হবে।    

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, ড্রাইভারকে পরিচালনা তাকে বেতন প্রদানের দায়িত্ব সম্পূর্ণ ট্রাকের মালিকের বঙ্গ এক্সপ্রেস বিভিন্ন সময় ড্রাইভারকে সুযোগ-সুবিধা, বোনাস, ইন্সেন্টিভ ইত্যাদি দিতে পারে যার সিদ্ধান্ত একান্তই বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষের নিজস্ব [রেফারেন্স চেক অনুচ্ছেদ : ()]  

৩) ট্রিপ ভাড়া মোবাইল অ্যাপে স্বয়ংক্রিয়ভাবে (এবং তাৎক্ষণিকভাবে) গণনা করা হবে যা গাড়ির আকার, পণ্যের ওজন, পণ্যের ধরন, পিকআপ থেকে ডেলিভারি পয়েন্টের দূরত্ব (প্রতি কিলোমিটার হিসেবে), লেবারের সংখ্যা, ট্রাফিকের অবস্থা ইত্যাদি বিষয়ের উপর নির্ভর করে নির্ধারিত এমনকি পরিবর্তিত হতে পারে। রোড ট্যাক্স, টোল, পার্কিং ইত্যাদি ভাড়ার অন্তর্ভুক্ত নয়, সেগুলো ট্রাকের মালিক বা তাঁর মনোনীত ব্যক্তি বা ড্রাইভার পরিশোধ করবেন। 

৪) ট্রাক মালিক অথবা ড্রাইভার নিজে ট্রিপের ভাড়ার বাইরে অতিরিক্ত খরচ যেমন রোড ট্যাক্স, ট্রল, পার্কিং, চাঁদা, রুট খরচ ইত্যাদি দিতে দায়বদ্ধ থাকবে। উক্ত খরচ কাস্টমার বা বঙ্গ এক্সপ্রেস পরিশোধের জন্য বাধ্য নয় ।

৫) ট্রাক মালিক তার ড্রাইভারকে পরিচালনা করা ও বেতন পরিশোধের জন্য দায়বদ্ধ থাকবে। বঙ্গ এক্সপ্রেস কর্তৃপক্ষ চাইলে তাদের নিজস্ব বিবেচনায় ড্রাইভারের জন্য ট্রিপ টার্গেট প্রদান করবে এবং টার্গেট পূরণ করতে পারলে ড্রাইভারকে অতিরিক্ত প্রণোদনা, কমিশন বা অন্যান্য সুবিধা প্রদান করবে। কোম্পানির পক্ষ থেকে ড্রাইভারকে প্রদানকৃত সুযোগ সুবিধা গাড়ির মালিককে অবহিত করতে পারে আবার নাও করতে পারে তার সিদ্ধান্ত কোম্পানি এককভাবে নিতে পারবে।   

৬) প্রতিদিনের ট্রিপের চাহিদা, ট্রিপ শিডিউল ও রুটের ভাড়া সম্পর্কে ট্রাক ড্রাইভার বঙ্গ এক্সপ্রেসের কর্তৃপক্ষকে রিপোর্ট করবে যাতে প্রয়োজনে বিভিন্ন প্যারামিটার অনুযায়ী সারচার্জ নির্ধারণ করতে পারে। এতে করে ড্রাইভার ন্যায্য ভাড়া পাবেন; কেননা ট্রিপের চাহিদা এবং যোগানের উপর ভিত্তি করে রুট রেট পরিবর্তিত হতে পারে।   

৮) ট্রাকের ভাড়া (অন-ডিমান্ড) নিম্নোক্ত ভাবে হিসেব করা হবে: -   

  • ঢাকা, গাজিপুর, নারায়ণগঞ্জ, শহর/জেলা (ট্রিপের দূরত্ব ২০ কিঃমিঃ পর্যন্ত) এর জন্য প্রযোজ্য

ট্রাকের ধরন এবং সাইজ

বেইজ ভাড়া

(টাকা)

বেইজ দূরত্ব

(কিলোমিটার)

প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া

লোডিং এর জন্য বরাদ্দ সময়

আনলোডিং এর জন্য বরাদ্দ সময়

লোডিং এর সময় পার হলে প্রতি মিনিটের জন্য অতিরিক্ত চার্জ

১ টনের খোলা ট্রাক (৭ ফিট)

৩৮০

৩৫

৬০

মিনিট ফ্রি

৩০

মিনিট ফ্রি

৪ টাকা

১ টনের কভার ভ্যান (৭ ফিট)

৪৫০

৩৮

৬০

মিনিট ফ্রি

৩০

মিনিট ফ্রি

৪ টাকা

১.৫ টনের খোলা ট্রাক (৯ ফিট)

৬০০

৪২

৭৫ মিনিট ফ্রি

৪৫

মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

১.৫ টনের কভার্ ভ্যান (৯ ফিট)

৬৮০

৪৫

৭৫ মিনিট ফ্রি

৪৫

মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

২ টনের খোলা ট্রাক (১২ ফিট)

৮০০

৫০

৯০ মিনিট ফ্রি

৬০ মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

২ টনের কভার ভ্যান (১২ ফিট)

৯০০

৫২

৯০ মিনিট ফ্রি

৬০ মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

 

 

  • বাহিরের এলাকা গুলোর জন্য প্রযোজ্য (দীর্ঘ দূরত্বের ট্রিপ বা ট্রিপের দূরত্ব ২০ কিঃমিঃ এর অধিক হলে)

ট্রাকের ধরন এবং সাইজ

বেইজ ভাড়া

(টাকা)

বেইজ দূরত্ব

(কিলোমিটার)

প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া

লোডিং এর জন্য বরাদ্দ সময়

আনলোডিং এর জন্য বরাদ্দ সময়

লোডিং এর সময় পার হলে প্রতি মিনিটের জন্য অতিরিক্ত চার্জ

১ টনের খোলা ট্রাক (৭X৪X৫) ফিট

৩৮০

২০

৬০

মিনিট ফ্রি

৩০

মিনিট ফ্রি

৪ টাকা

১ টনের কভার ভ্যান (৭X৪X৫) ফিট

৪৫০

২১

৬০

মিনিট ফ্রি

৩০

মিনিট ফ্রি

৪ টাকা

১.৫ টনের খোলা ট্রাক (৯ ফিট)

৬০০

২৩

৭৫ মিনিট ফ্রি

৪৫

মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

১.৫ টনের কভার্ ভ্যান (৯ ফিট)

৬৮০

২৪

৭৫ মিনিট ফ্রি

৪৫

মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

২ টনের খোলা ট্রাক (১২ ফিট)

৮০০

২৪

৯০ মিনিট ফ্রি

৬০ মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

২ টনের কভার ভ্যান (১২ ফিট)

৯০০

২৫

৯০ মিনিট ফ্রি

৬০ মিনিট ফ্রি

৫ টাকা

 

প্রাইসিং লজিক কিভাবে কাজ করে:

ড্রাইভার পিকআপ পয়েন্টে পৌঁছে "arrived" অপশনে স্লাইড করে কাস্টমারের কাছ থেকে OTP নিয়ে ড্রাইভার অ্যাপে প্রবেশ করবেন, তাহলে পিকআপের ভাড়া ৩৮০ টাকা (বেইজ ফেয়ার) গণনা হবে। “arrive" এর সময় থেকে পিকআপ "successful" হওয়ার আগ পর্যন্ত লোডিং এর সময় হিসেবে রেকর্ড করা হবে। ডেলিভারির উদ্দেশ্যে "start" করার ১ কিঃমিঃ দূরত্বের পর অর্থাৎ দ্বিতীয় কিঃমিঃ থেকে প্রতি কিঃমিঃ চার্জ বেইজ ফেয়ারের সাথে যুক্ত হবে, যেহেতু বেইজ ফেয়ারের সাথে ফ্রি ১ কিঃমিঃ বেইজ দূরত্ব। 

ট্রিপ সম্পন্ন করার পর বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট (ড্রাইভার) অ্যাপে সাইড মেনুবারের "Earnings" অপশনে পিকআপ ও ডেলিভারির ভাড়ার গণনা আলাদা আলাদাভাবে দেখানো হবে; ড্রাইভার পিকআপ ও ডেলিভারির ভাড়াকে যোগ করে সর্বমোট ভাড়া কাস্টমার থেকে সংগ্রহ করবেন। এছাড়া সর্বমোট ভাড়া ওয়ে-বিল (ডিজিটাল বিল) এর "Earnings" উল্লেখ থাকবে যা ড্রাইভার অ্যাপ ও কাস্টমার অ্যাপ থেকে ডাউনলোড করা যাবে। 

 

ভাড়া গণনার উদাহরণ:

স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপে কিভাবে ভাড়া গণনা বা নির্ধারিত হবে তার ধারণা নিম্নোক্ত উদাহরণের মাধ্যমে বুঝে নিন

ধরুন, আপনি ঢাকার উত্তরা থেকে যাত্রাবাড়ী ২৫ কিঃমিঃ এর একটা ট্রিপ গ্রহণ করেছেন। ধরে নিচ্ছি, আপনার ট্রাকের ধরণ হল ১ টন খোলা ট্রাক। 

আমরা জানি, ১ টন খোলা ট্রাকের বেইজ ভাড়া (প্রথম ১ কিঃমিঃ) ৩৮০ টাকা এবং দ্বিতীয় কিলোমিটার থেকে প্রতি কিঃমিঃ ভাড়া ৩৫ টাকা।

সুতরাং, ২৫ কিঃমিঃ ট্রিপের জন্য ভাড়া হবে = ৩৮০টাকা (১কিঃমিঃ বেইজ ভাড়া) + ২৪ কিঃমিঃ X ৩৫ টাকা (প্রতি কিঃমিঃ ভাড়া)

                                                                  =   ৩৮০ (১কিঃমিঃ বেইজ ভাড়া) + ৮৪০ টাকা                                               

                                             সর্বমোট ভাড়া = ১২২০ টাকা

বি. দ্র.:

১) বঙ্গ এক্সপ্রেসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ট্রিপের ভাড়া পরিবর্তন হতে পারে।

২) সারচার্জ: রাস্তার ট্রাফিক অবস্থা, ট্রাকের চাহিদা ও যোগানের উপর ভিত্ত্বি করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভাড়া বাড়তে পারে। বেইজ ফেয়ার (base fare), প্রতি কিঃমিঃ ভাড়া (distance fare), অথবা বেইজ ওয়েটিং টাইম (base waiting time)- এর উপর ১০ থেকে ২০% মূল ভাড়ার সাথে সারচার্জ সংযোজন করা হবে। বঙ্গ এক্সপ্রেসের কর্তৃপক্ষ সারচার্জ নির্ধারণ করবে। উক্ত অতিরিক্ত ভাড়া ট্রাক মালিক উপভোগ করবে।

৩) ড্রাইভার সারচার্জের বিষয়ে কাস্টমারকে সবসময় অবহিত করতে দায়বদ্ধ থাকবেন।

৪) কাস্টমার (লাস্টমাইল কাস্টমার বা প্রাপক) চাইলে যেকোন সময়ে তাকে ডিজিটাল বিল প্রদান করতে ট্রাক ড্রাইভার বাধ্য থাকবেন। 

৫) বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্রতিযোগী কোম্পানি বা তার প্রতিনিধিকে বঙ্গ এক্সপ্রেসের ডেলিভারি চার্জ বা ট্রিপের ভাড়া (উপরে উল্লিখিত) সম্পর্কে কোন প্রকার তথ্য প্রদান করতে পারবে না। 

 

কাস্টমার থেকে ভাড়া আদায়ের পদ্ধতি:

  • সফলভাবে ট্রিপটি সম্পন্ন করার পর বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট অ্যাপের বাম পাশের সাইড মেনুবারের "Earnings" অপশন থেকে উক্ত ট্রিপের ফাইনাল ভাড়া দেখে নিন এবং কাস্টমার থেকে ক্যাশে (নগদ) ভাড়া সংগ্রহ করুন।

বিশেষ নোট:

বঙ্গ এক্সপ্রেস পাইলট (ড্রাইভার) অ্যাপে সাইড মেনুবারের "Earnings" অপশনে পিকআপ ও ডেলিভারির ভাড়ার গণনা আলাদা আলাদাভাবে দেখানো হবে; ড্রাইভার পিকআপ ডেলিভারির ভাড়াকে যোগ করে সর্বমোট ভাড়া কাস্টমার থেকে সংগ্রহ করবেএছাড়া সর্বমোট ভাড়া ওয়ে-বিল (ডিজিটাল বিল) এর "Earnings" উল্লেখ থাকবে যা ড্রাইভার অ্যাপ কাস্টমার অ্যাপ থেকে ডাউনলোড করা যাবে 

  • ট্রিপ সম্পন্ন করার সময় থেকে পরবর্তী কর্ম দিবসের মধ্যে বঙ্গ এক্সপ্রেস এর মার্চেন্ট বিকাশ নম্বরে নির্ধারিত কমিশন পরিশোধ করুন। অথবা আপনার নিকটস্থ বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্টে কমিশন পরিশোধ করে (দ্রাইভার) ওয়ালেটে রিচার্জ আপডেট করে নিন। এক্ষেত্রে, কমিশন দেয়ার জন্য অবশ্যই ট্রাক মালিক দায়বদ্ধ থাকবেন; ট্রাক মালিক ও ড্রাইভার অভিন্ন ব্যক্তি হলে অথবা ট্রাক মালিক কমিশন প্রদানের দায়িত্ব তার ড্রাইভারকে অর্পণ করলে ড্রাইভার অবশই পরবর্তী সেকশন- “কমিশন ফী” সম্পর্কে অবগত থাকবেন এবং সেই অনুযায়ী কমিশন পরিশোধ করবেন।

 

ট্রাক মালিক থেকে বঙ্গ এক্সপ্রেস- কমিশন ফী:

ট্রিপের ভাড়ার ধাপ

কমিশন

১০০০ টাকা পর্যন্ত

৫০ টাকা

১০০১ থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত

১০০ টাকা

২০০১ থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত

১৫০ টাকা

৩০০১ থেকে ৪০০০ টাকা পর্যন্ত

২০০ টাকা

৪০০০ এর অধিক

ভাড়ার ৭.৫ শতাংশ

 

বি. দ্র.:

১) উক্ত কমিশন চার্ট যেকোনো সময় বঙ্গ এক্সপ্রেসের কর্তৃপক্ষ পরিবর্তন, পরিমার্জন বা বাতিল করার ক্ষমতা রাখে। 

২) ট্রিপ গ্রহণ করার পরে যদি ড্রাইভার বা মালিক ট্রিপটি বাতিল করে তবে ট্রিপের কমিশন কোম্পানিকে দিতে হবে।

৩) ট্রিপ গ্রহণ করার জন্য ড্রাইভারকে তার অ্যাপের ওয়ালেট সেকশনে সর্বনিম্নে ২৫০ টাকা অগ্রিম টাকা (কমিশনের জন্য) রাখতে হবে। অন্যথায় উক্ত ড্রাইভার/মালিক ট্রিপ পাবে না। 

৪) কোম্পানির নির্ধারিত মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ছাড়া অন্যকোন মাধ্যমে বা কারো ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে কোন প্রকারের লেনদেনের করা যাবে না। যদি করে তাহলে তার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেস দায়ী থাকবে না। 

৫) কমিশনের অগ্রিম পেমেন্ট পরিশোধ করে ট্রাক মালিক বা তার ড্রাইভার অবশ্যই কোম্পানি প্রতিনিধি অথবা নিকটস্থ বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট থেকে মানি রিসিট (ক্যাশ মেমো) প্রমান বুঝে নিবে। 

৬) ড্রাইভার ওয়ালেট আপডেট ও রিচার্জের জন্য অ্যাপ থেকে “Chat with us" অপশনে সরাসরি আমাদের কাস্টমার সাপোর্ট টিমকে জানিয়ে দিতে পারেন এবং সেই অনুযায়ী আমাদের সাপোর্ট টিম ওয়ালেট আপডেট করে দিবে। 

১) গাড়ির মালিকানা বা পরিচালনার দায়িত্ব গাড়ির মালিকের অথবা গাড়ির মালিক যদি তার ড্রাইভারের উপর গাড়ি ব্যবস্থাপনা অ পরিচালনার দায়িত্ব অর্পণ করেন তাহলে ড্রাইভার উক্ত গাড়ির সকল তদারকির জন্য দায়বদ্ধ থাকবেন। সুতরাং কোনো ট্রিপের চাহিদা অনুযায়ী গাড়ি ব্যবস্থা করা ট্রাক মালিক বা তার ড্রাইভারের দায়িত্ব। 

২) গাড়ির মালিক বা তার ড্রাইভার তার গ্যারেজ বা স্ট্যান্ড-এ গাড়ি পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ করবেন; গাড়ির ব্যবস্থাপনার জন্য বঙ্গ এক্সপ্রেস দায়ী থাকবে না।

৩) স্ট্যান্ড বা গ্যারেজ ফি গাড়ির মালিক বা তার ড্রাইভার দ্বারা পরিশোধ করতে হবে।

৪) কাস্টমার গাড়িতে বিপজ্জনক বা নিষিদ্ধ পণ্য বহন করছে কিনা তা ড্রাইভারকে নজরদারিতে রাখতে হবে। নিষিদ্ধ পণ্য বহন ও ডেলিভারি করছে এরকম অভিযোগ প্রমান হলে কোম্পানির কোন দায়ভার থাকবেনা, বরং উক্ত ড্রাইভারের অনিয়মের বিরুদ্ধে কোম্পানি নিজেই আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পারবে। 

৫) আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকট এধরণের নিষিদ্ধ পণ্য পরিবহনের অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার দায়ভার বঙ্গ এক্সপ্রেসের উপর বর্তাবে না। বরং এধরণের কেইসের সমস্ত দায়ভার ট্রাক মালিক বা তার ড্রাইভারের নিজের উপর বর্তাবে।   

৬) প্রতিটি ট্রিপের শুরুতে ড্রাইভারকে অবশ্যই গাড়িটি পরীক্ষা করতে হবে। ড্রাইভার যদি গাড়ির বা এর যন্ত্রাংশের কোনো ক্ষতি বা ত্রুটি লক্ষ্য করেন, তাহলে অবশ্যই গাড়ির মালিককে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব জানাতে হবে এবং ট্রিপ শেষ করার ২৪ ঘণ্টার ভেতর বঙ্গ এক্সপ্রেস-কে জানাতে হবে। তবে গাড়ির কোনো ক্ষয়ক্ষতি হলে তার মেইন্টেনেন্সের জন্য কোম্পানি দায়বদ্ধ থাকবেনা। 

৭) ট্রিপের লোড বা আনলোড করার সময় ড্রাইভারকে কাস্টমারের মালামাল ভালোভাবে দেখে নিতে হবে এবং অ্যাপের মাধ্যমে পিকআপ ও ডেলিভারির প্রমান হিসেবে ছবি তুলে আপলোড দিতে হবে। 

 এক্ষেত্রে, ড্রাইভার যদি পিকআপের সময় কোন প্রকার নিষিদ্ধ বা অবৈধ পণ্যের আলামত পায় তাহলে তৎক্ষনাত ট্রিপ বর্জন করে এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে জানাবে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকট কোনো প্রকারের ভুল তথ্য দেয়া যাবে না বা কোনো তথ্য গোপন করা যাবেনা। 

৮) ড্রাইভারকে অবশ্যই গাড়ি এবং ড্রাইভারদের জন্য প্রযোজ্য সমস্ত আইন সহ সরকারি সকল নিষেধাজ্ঞা মেনে চলতে হবে। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করলে তার দায়ভার ড্রাইভারের উপর বর্তাবে।

৯) প্রতিটি ট্রিপ শেষে ড্রাইভারকে অবশ্যই গাড়িটি গাড়ির মালিকের গ্যারেজ বা স্ট্যান্ডে ফেরত দিতে হবে অথবা ট্রাক মালিকের নির্দেশনা অনুযায়ী গাড়ি ও ড্রাইভার অবস্থান করবে।

১০) গাড়ির অভ্যন্তরীণ এবং বাহ্যিক অংশ অবশ্যই সঠিকভাবে পরিষ্কার হতে হবে।

ড্রাইভার সরাসরি বা তার মালিকের নির্দেশনায় বঙ্গ এক্সপ্রেস প্ল্যাটফর্মে জুক্ত হলে কোম্পানি সম্পর্কিত বা কোম্পানি থেকে প্রাপ্ত যেকোনো ধরণের তথ্য- যেমন: সার্ভিস সমূহ, টেকনোলজি (মোবাইল অ্যাপ), ব্যবসায়িক শর্তাবলী, মার্কেটিং স্ট্রাটেজি, সমঝোতা স্মারকের বিষয় বস্তু, প্রচার পরিকল্পনা বা অন্যান্য  ক্রিয়াকলাপ সম্পর্কে বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্রতিযোগী কোনো প্রতিষ্ঠানকে প্রকাশ করা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। এছাড়া বঙ্গ এক্সপ্রেসের ব্যবসায়ে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে বা কোন প্রকারের ক্ষতিসাধন হতে পারে এমন কোন তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষা করা ড্রাইভার ও তার মালিকের একান্ত নৈতিক দায়িত্ব।

ব্যবসায়িক প্রয়োজনে বা কাজের খাতিরে এই ধরনের তথ্য শুধুমাত্র কোম্পানির কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং এজেন্টদের কাছে প্রকাশ করতে পারবে। ড্রাইভার গোপনীয়তা রক্ষা করতে ব্যর্থ হলে কোম্পানি তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পারবে।   

* ট্রাক মালিক, পরিবহন ও ড্রাইভারের তথ্য দেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকট হস্তান্তরের পূর্ণ স্বাধীনতা বঙ্গ এক্সপ্রেসের রয়েছে। 

উক্ত সমঝোতা স্মারকে উভয়পক্ষ সম্মতি জানাচ্ছে যে, এই চুক্তিপত্রে উল্লেখিত কোনো গোপনীয় তথ্যের ব্যবহার বা প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকবে, যদি চুক্তিপত্রের কোনো ধারা অমান্য করা হয় তাহলে বাংলাদেশে প্রচলিত আইন ব্যবস্থা অনুযায়ী অভিযুক্ত পক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোম্পানি গোপনীয় তথ্যের অননুমোদিত ব্যবহার বা প্রকাশের বিরুদ্ধে ন্যায়সঙ্গত বা আদেশমূলক বিচার পাওয়ার অধিকারী হবে। কোম্পানী এই ধরনের লঙ্ঘনের ফলে সৃষ্ট প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ উভয় ক্ষতির জন্য, আইনগতভাবে অনুমোদিত প্রতিকার পাওয়ার অধিকারী হবে। এই ধারার অধীনে কোম্পানি কোনো পদক্ষেপ নিলে, অভিযুক্ত ব্যক্তির কাছ থেকে তার অ্যাটর্নির ফি এবং খরচ পুনরুদ্ধার করার অধিকারী হবে।

 

এই চুক্তি লিখিতভাবে উভয়পক্ষের অনুমোদিত প্রতিনিধিদের পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে পরিবর্তিত ও সংশোধিত হবে। উভয়পক্ষের পারস্পরিক সম্মতির লিখিত দলিল (Mutual Agreement) না পাওয়া গেলে এই সমঝোতা স্মারক চুক্তিতে কোন প্রকারের পরিবর্তন বা সংশোধন কার্যকর হবে না।

ড্রাইভার যতদিন বঙ্গ এক্সপ্রেসের প্লাটফর্ম ব্যবহার করবে ততদিন উল্লেখিত চুক্তিপত্রটি বলবৎ থাকবে। উভয়পক্ষের ব্যবসায়িক স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে এবং কাস্টমারের চাহিদা যোগান দিতে প্রয়োজন অনুযায়ী বিভিন্ন ধারা যুক্ত হতে পারে এবং বাদ দেয়া হতে পারে যা একান্তভাবে বঙ্গ এক্সপ্রেস পরিবর্তন করার ক্ষমতা রাখে।

ড্রাইভার উক্ত সমঝোতা স্মারকের কোন ধারা বা অনুচ্ছেদ সম্পর্কে অস্পষ্ট ধারণা পোষণ করলে অথবা কোন ধারা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ও আলোচনা করতে চাইলে বঙ্গ এক্সপ্রেসের সাপোর্ট টিম অথবা সরাসরি সার্ভিস পয়েন্ট- এ গিয়ে যোগাযোগ করতে পারেন।

যোগাযোগের ঠিকানা:

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- উত্তরা

ঠিকানা: হাউজঃ ৬৯, (ফ্ল্যাটঃ এ৩, এ৪), তৃতীয় ও চতুর্থ তলা, রোডঃ০৭, সেক্টরঃ০৪, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫৫০, ০১৩২২৮১০৬৫৭

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- ধানমন্ডি

ঠিকানাঃ৪৩/২, আব্দুল হাই রোড, জিগাতলা, ধানমন্ডি, ঢাকা

মোবাইলঃ০১৩১১৮১৩৫১৭

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- আশকোনা (উত্তরা)

৪২২ এ, আশকোনা প্রাইমারী স্কুল, এয়ারপোর্ট, দক্ষিণ খান, উত্তরা, ঢাকা

মোবাইলঃ০১৩১১৮১৩৫১৬

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- উত্তরা ()

ঠিকানাঃ বাসাঃ ৬১, রোডঃ১৮, সেক্টরঃ১১, উত্তরা, ঢাকা

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩৭

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- পল্টন, মতিঝিল 

ঠিকানাঃ২৯/১ তোয়েনবি সার্কুলার রোড, (দৈনিক বাংলার মোড়), মতিঝিল, ঢাকা-১১০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩৬

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- লালবাগ

ঠিকানাঃ১ নাম্বার নবাবগঞ্জ রোড , লালবাগ, ঢাকা

মোবাইলঃ ০১৩১১৮১৩৫১৯

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- ওয়ারী, গুলিস্তান, গেন্ডারিয়া, পোস্তগোলা, যাত্রাবাড়ী

ঠিকানাঃ৩/৭, জনসন রোড, নগর সিদ্দিক প্লাজা (২য় তলা), ঢাকা-১১০০

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫৩১

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- বাংলা বাজার, নয়া বাজার, ধোলাই খাল, চকবাজার

ঠিকানাঃ৩/৭, জনসন রোড, নগর সিদ্দিক প্লাজা (২য় তলা), ঢাকা-১১০০

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫২০

) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- কারওয়ান বাজার

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫৫২

১০) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- গুলশান

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫৪৫

১১) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- গাবতলী

মোবাইলঃ ০১৩২২৮১৩৫৪৬

১২) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- ফেনী

ঠিকানাঃ তারা নিবাস সিটি কমপ্লেক্স,দোকান নং : ১৮ এবং ১৯ (দ্বিতীয় তলা ),(পুরাতন মদিনা বাসস্ট্যান্ডের পূর্ব পাশে),ট্রাংক রোড,ফেনী-৩৯০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২২

১৩) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- নরসিংদী সদর

ঠিকানাঃ বকুল টাওয়ার (ফাস্ট ফ্লোর), ঢাকা বাস স্ট্যান্ড, ভেলেঙ্গার সদর, নরসিংদী, ১৬০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৪, ০১৩২২৮১৫৪১

১৪) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- সিরাজগঞ্জ জেলা

ঠিকানাঃ মৌসুমি সিনেমা হল মোড়, মাসিপুর সদর, সিরাজগঞ্জ, ৬১০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৫

১৫) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- পাবনা জেলা

ঠিকানাঃ তৃপ্তি নিলয় রোড, রাধানগর সদর, পাবনা,৬৬০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৭

১৪) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- চাঁপাই নবাবগঞ্জ

ঠিকানাঃ সোনামসজিদ রোড, বারঘরিয়া বাজার, মাসুদ মিয়া মার্কেট দ্বিতীয় তলা, সদর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩২

১৫) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- শিবগঞ্জ

ঠিকানাঃ সোনামসজিদ রোড, বারঘরিয়া বাজার, মাসুদ মিয়া মার্কেট দ্বিতীয় তলা, সদর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩২

১৬) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- গোদাগাড়ী (রাজশাহী)

ঠিকানাঃ রেলবাজার, মহিশাল বাড়ী, গোদাগাড়ী, রাজশাহী

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩৩

১৭) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- রাজশাহী

ঠিকানাঃ বাড়ি নম্বরঃ ৩৩৭ (দ্বিতীয় তলা) নিউমার্কেট রোড, অলকার মোড় , ঘোড়ামারা, রাজশাহী - ৬১০০

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৬

১৮) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- নওগাঁ

ঠিকানাঃ দোয়েল মোড়, বৌ বাজার, সদর, নওগাঁ

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩৫

১৯)বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা)

ঠিকানাঃ বাসা নংঃ ৩৪, রোড নংঃ ১/২, গ্রামঃ গোরস্থান পাড়া, গাইবান্ধা

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৯

২০) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- রংপুর

ঠিকানাঃ ইসলাম বাগ, আর কে রোড, উপশহর, সদর, রংপুর

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫৩৯

২১) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- কক্সবাজার জেলা

ঠিকানাঃ জনতা মার্কেট রোড, হালকাকারা, ০২ নং ওয়ার্ড, চকরিয়া পৌরসভা, কক্সবাজার

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২১

২২) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- চাঁদপুর

ঠিকানাঃ নগদবাজার, মমিনপাড়া, চাঁদপুর সদর, চাঁদপুর

মোবাইলঃ০১৩২২৮১৩৫২৩

২৩) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- সিলেট সদর

মোবাইলঃ০১৩২২৮১০৬৮০

২৪) বঙ্গ এক্সপ্রেস সার্ভিস পয়েন্ট- জয়পুরহাট সদর, হিলি, পার্বতীপুর

ঠিকানা: হামদ ওয়ার্ল্ড, সিও কলোনি, টাউন হল সংলগ্ন (পূর্ব পাশে), জয়পুরহাট সদর, জয়পুরহাট -৫৯০০

মোবাইল: ০১৩২২৮১৩৫৩৪

 

Smartest logistics solutions are now just one-click away!

Download our app on your smartphone and share with your community about your experience.

USER APP

PILOT APP

PARTNER APP

Leveraging the experience of e-commerce customers with simple but sophisticated technology which helps the businesses to adopt digitization at its best with automation in distribution as well.

Copyright © 2021 Bongo Xpress. All rights reserved.
Logos & Images are the Trademarks of their respective brands.